Friday, September 30বাংলারবার্তা২১-banglarbarta21
Shadow

রেলষ্টেশনে শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিতে পুলিশি হামলার অভিযোগ এনে এবার শাহবাগে অসস্থান কর্মসুচী রনির

গত ৭ জুলাই থেকে ১৯ জুলাই পর্যন্ত রেলওয়ের অব্যবস্থাপনা বন্ধের দাবিতে শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিতে পুলিশি হামলার অভিযোগ এনে এবার শাহবাগে অবস্থান নিয়েছেন ৬ দফা দাবী আদায়ে আন্দোলনরত মহিউদ্দিন রনি। রনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের থিয়েটার অ্যান্ড পারফরম্যান্স স্টাডিজ বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী। এ সময় তার সঙ্গে অর্ধশতাধিক শিক্ষার্থী শাহবাগে অবস্থান নিয়েছেন।

অনেকে মনে করেছেন রনি তৎকালিন যুদ্ধাপরাধিদের ফাঁসির দাবিতে আন্দোলনের মূখপাত্র ইমরান এইচ সরকারের স্থলাভিসিক্ত হচ্ছেন। যেটি প্রথম শাহবাগ থেকেই শুরু হয়েছে।

ঠিক সমেয়কার দাবীর মতোই রেলওয়ের অব্যবস্থাপনা বন্ধে ছয় দফা দাবিতে কমলাপুর স্টেশনে তিনি প্রথমে প্রায় ১৬ দিন অবস্থান কর্মসূচি করছিলেন রনি।

রেলওয়ের অব্যবস্থাপনা বন্ধের দাবিতে অবস্থানের সময় সেখানে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনীর ‘হামলা’র অভিযোগ এনে শাহবাগে অবস্থান নিয়েছেন তিনি।

রেলেওয়ের অব্যবস্থাপনার দাবি আদায়ে ৪৮ ঘণ্টার সময় বেঁধে দেওয়ার পরও কর্তৃপক্ষের ‘আশ্বাস না পাওয়ায়’ বৃহস্পতিবার বিকেলে সংবাদ সম্মেলন করে আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেন রনি। একই সঙ্গে সারা দেশে ‘ভুক্তভোগীদের’ রেলস্টেশনে অবস্থান কর্মসূচি পালনেরও আহ্বান জানান তিনি।

টিকিট কালোবাজারী ও রেলের এজেন্ডা সহজ ডট কমের বিরুদ্ধে রনি গত ৭ জুলাই থেকে ১৯ জুলাই পর্যন্ত কমলাপুর রেলস্টেশনে অবস্থান করেন। গত ১৯ জুলাই লংমার্চ করে রেলওয়ে ভবনে গিয়ে মহাপরিচালক বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করেন। সে সময় ছয় দফা দাবি মেনে নিতে ৪৮ ঘণ্টার আলটিমেটাম দেন এবং প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ ও সরকার কোন ব্যবস্থা না নেওয়ায় এবার শাহবাগে অবস্থান নিয়ে মহিউদ্দিন রনি বলেন, ‘আগের বেঁধে দেওয়া ৪৮ ঘণ্টা সময় শেষ হয়ে যাওয়ায় আমি ও আমার ভাই-বোনদের নিয়ে আজ বিকেলে কমলাপুর রেলস্টেশনে যাই। সেখানে গেলে পুলিশ ও আনসার আমাদের ওপর হামলা চালায়। আমার ভাই-বোনদের গায়ে হাত দেয়। আমি আমার ভাই-বোনদের কোনো ক্ষতি চাই না। তাই তাদের নিয়ে আমি শাহবাগে চলে এসেছি। যতক্ষণ পর্যন্ত আমার দেওয়া ছয় দফা ও আমাদের ওপর হামলার বিচার হবে না ততক্ষণ পর্যন্ত আমরা শাহবাগে অবস্থান করব।

মহিউদ্দিন রনি বলেন সরকারী সব দপ্তরে যেভাবে দুর্ণিতি চলছে সে সকল কিছুর এখনই লাগাম টেনে না ধরলে সরকার পরবর্তী সময়ে অনেক সমস্যার সম্মখিন হতে পারেন। আমাদের এই শান্তিপূর্ণ আন্দোলন যেন সরকার সঠিকভাবে নেন তারও আহবান জানান তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.