hawking phd thesis resume writer service dissertation proposal training development personal essay for college applications
Saturday, September 25বাংলারবার্তা২১-banglarbarta21
Shadow

বারের ভীতর ধর্ষন ও হত্যা চেষ্টা করেন ব্যাবসায়ী নাসির, অবশেষে গ্রেফতার

বার্তা প্রতিনিধি: পরিমনি ও তার টিম বারের ভীতর প্রবেশ করলে নাসির উদ্দিন মাহমুদ তাকে বারে অভ্যর্থনা জানান। তারপর পরিমনিকে মাহমুদ ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টার সময় ব্যবসায়ী নাসির উদ্দিন মাহমুদ তার শরীরের বিভিন্ন স্পর্শকাতর স্থানে স্পর্শ করেছে বলে অভিযোগ করেছেন চিত্র নায়িকা পরীমণি।

ঘটনার পর সোমবার সাভার মডেল থানায় নাসিরসহ ছয়জনের বিরুদ্ধে ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টার মামলা করেন নায়িকা; ওই মামলার এজাহারেই এ অভিযোগ করেন তিনি।

পরিমনির সাথে নাসির উদ্দিন মাহমুদের ঘটে যাওয়া ঘটনাস্থল ঢাকা বোট ক্লাবে কী ঘটেছিল তার বর্ণনা দিয়ে মামলার এজাহারে পরীমণি লিখেছেন, এক নম্বর আসামি নাসির উদ্দিন মাহমুদ আমাদের ডেকে বারের ভেতরে বসার অনুরোধ করেন এবং কফি খাওয়ার প্রস্তাব দেন। আমরা বিষয়টি এড়িয়ে যেতে চাইলে আসামি মদ্যপান করার জন্য জোর করেন।

সাভার মডেল থানার এজাহারে তিনি আরও লিখেছেন, মদ্যপান করতে না চাইলে নাসির জোর করে আমার মুখের মধ্যে মদের বোতল ঢুকিয়ে মদ খাওয়ানোর চেষ্টা করেন। এতে আমি সামনের দাঁত ও ঠোঁটে আঘাত পাই। নাসির আমাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন। আমার শরীরের বিভিন্ন স্পর্শকাতর স্থানে স্পর্শ করে এবং আমাকে জোর করে ধর্ষণের চেষ্টা করেন। আমার সঙ্গীদের সহায়তায় ধর্ষকের হাত থেকে রক্ষা পাই।

ঢাকাই চলচ্চিত্র নায়ীকা পরীমণি এজাহারে আরো বলেছেন, ১ নম্বর আসামি উত্তেজিত হয়ে টেবিলে রাখা গ্লাস ও মদের বোতল ভাঙচুর করে আমার গায়ে ছুড়ে মারেন। তখন আমার কস্টিউম ডিজাইনার জিমি ১ নম্বর আসামিকে বাধা দিতে চাইলে তাকেও মারধর করেন। এ সময় আমি ৯৯৯–এ কল করতে গেলে আমার ব্যবহৃত মোবাইল ফোনটি টান মেরে ফেলে দেওয়া হয়। ২ নম্বর আসামিসহ অজ্ঞাতনামা চারজন ১ নম্বর আসামিকে ঘটনা ঘটাতে সহায়তা করেন।

সাভার থানায় মামলা করার আগে রোববার রাতে সংবাদ সম্মেলনে এবং সন্ধ্যায় ফেসবুক পেজে পোস্টে ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টার অভিযোগ তুলে প্রধানমন্ত্রীর কাছে বিচার চান ঢাকাই ছবির আলোচিত এই নায়িকা।

অবশেষে ঢাকাই চলচ্চিত্রের অভিনেত্রী পরীমণিকে ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টার অভিযোগে করা মামলার প্রধান আসামি নাসির উদ্দিন মাহমুদসহ পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ঢাকা মহানগর পুলিশ কমিশনার (ডিএমপি) মোহা. শফিকুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

আসামীদের গ্রেপ্তারের পর পরীমণির তাৎপক্ষণিক পতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে বলেন, ‘দ্রুত প্রধান আসামি গ্রেপ্তার হওয়ায় এখন বাঁচার সাহস পাচ্ছি। আশা করি অন্য আসামীরাও দ্রুত গ্রেপ্তার হবে।

তিনি তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় প্রশাসনকে ধন্যবাদ জানান। এ সময় পরীমনি এ ঘটনায় তার পাশে যারা দাঁড়িয়েছেন নানা মাধ্যমে প্রতিবাদ করেছেন তাদের সবার কাছে কৃতজ্ঞতা জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published.