steroid research paper do my assignment australia writing a college application essay 300 word can you buy a case study analysis online how to show bar admissions on resume
Friday, February 26বাংলারবার্তা২১-banglarbarta21
Shadow

মতিঝিলের বলাকা ভাস্কর্য সহ অনেক খ্যাতিমান ভাস্কর্য নির্মানের জনক মৃণাল হক আর নেই

বার্তা প্রতিনিধি: মতিঝিলের বলাকা ভাস্কর্য সহ অনেক খ্যাতিমান ভাস্কর্য নির্মানের জনক দেশের খ্যাতিমান ভাস্কর মৃণাল হক এই ধরায় আর নেই। গত শুক্রবার দিবাগত রাত ২টার দিকে গুলশানের বাসায় তার মৃত্যু হয়।

খ্যাতিমান এই ভাস্কর্য সৈনিক মৃণাল হকের বয়স হয়েছিল ৬২ বছর। মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন তার সহযোগী গ্রাফিক্স ডিজাইনার আলমগীর।

আলমগীর জানান, খ্যতিমান মৃণাল হক দীর্ঘদিন ধরে ডায়াবেটিসসহ বিভিন্ন রোগে ভুগছিলেন। শুক্রবার রাতে তার সুগার লেভেল কমে যায়। পাশাপাশি অক্সিজেনের মাত্রাও কমে গিয়েছিল।

বাংলাদেশের এই ভাস্কর্য সৈনিক মৃণাল হক ১৯৫৮ সালের ৯ সেপ্টেম্বর রাজশাহীতে জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৭৭ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা ইনস্টিটিউটে ভর্তি হন। ১৯৮৪ সালে তিনি মাস্টার্স সম্পন্ন করেন।

মৃণাল হক ১৯৯৫ সালে আমেরিকায় পাড়ি জমান এবং সেখানে তার প্রথম কাজ শুরু করেন। নিউইয়র্ক সিটিতে অবস্থিত বাংলাদেশের দূতাবাসে তার প্রথম প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়।

মৃণাল হক ২০০২ সালে দেশে ফিরে আসেন এবং স্থায়ীভাবে বসবাস শুরু করেন। একই বছর তিনি নিজ উদ্যোগে নির্মাণ করেন ঢাকার নাম খ্যাত মতিঝিলের বলাকা ভাস্কর্যটি।

এছাড়াও মৃণাল হক রাজধানীতে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সামনে ‘রত্নদ্বীপ’, হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালের সামনে ‘রাজসিক’, পরীবাগ মোড়ে ‘জননী ও গর্বিত বর্ণমালা’, ইস্কাটনে ‘কোতোয়াল’, এয়ারপোর্ট গোল চত্বরের ভাস্কর্য, নৌ সদর দফতরের সামনে ‘অতলান্তিকে বসতি’, সায়েন্স ল্যাবরেটরি মোড়ের ভাস্কর্য, বঙ্গবাজারে মুক্তিযুদ্ধের ভাস্কর্যসহ বিভিন্ন শিল্পকর্মের নির্মাতা তিনি।

মৃনাল হক ২০০৩ সালে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে নির্মিত গোল্ডেন জুবিলি টাওয়ারও তারই শিল্পকর্ম। তার স্মৃতিগুলো বাংলাদেশের মানুষের কাছে কৃতিময় স্মৃতি হয়ে থাকবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.